তসলিমা নাসরিনের আটটি বই

বইগুলো ডাউনলোড করতে বইয়ের কভার এর নিচের  ডাউনলোড লেখায় ক্লিক করুন

বইয়ের নামঃ কিছুক্ষণ থাকো

প্রকাশকালঃ ২০০৫

প্রকাশনীঃ আনন্দ পাবলিশার্স

কিছুক্ষণ থাকো - তসলিমা নাসরিন

ডাউনলোড

বইয়ের নামঃ লজ্জা

প্রকাশকালঃ  ১৯৯৩

পৃষ্ঠাসংখ্যাঃ ৬৩

সাইজঃ ৬.৪০ মেগাবাইট

লজ্জা - তসলিমা নাসরিন

ডাউনলোড

বইয়ের নামঃ শরম

পৃষ্ঠাসংখ্যাঃ ২৭১

সাইজঃ ১০.৬ মেগাবাইট

শরম -তসলিমা নাসরিন

ডাউনলোড

বইয়ের নামঃ আমার মেয়েবেলা

পৃষ্ঠাসংখ্যাঃ ২৩১

সাইজঃ ১.১৬ মেগাবাইট

আমার মেয়েবেলা - তসলিমা নাসরিনডাউনলোড

বইয়ের নামঃ দ্বিখণ্ডিত / ক

বইটি “ক” নামেও পরিচিত, বাংলাদেশে নিষিদ্ধ ঘোষিত হয়েছিল।

পৃষ্ঠাসংখ্যাঃ ৩৯৪

সাইজঃ ১.৮৭ মেগাবাইট

দ্বিখণ্ডিত

ডাউনলোড

বইয়ের নামঃ সেই সব অন্ধকার

পৃষ্ঠসংখ্যাঃ ৩৭০

সাইজঃ ২.০৭ মেগাবাইট

সেই সব অন্ধকার

ডাউনলোড

বইয়ের নামঃ শোধ

পৃষ্ঠাসংখ্যাঃ ১৩৯

সাইজঃ ১০.৬ মেগাবাইট

শোধ - তসলিমা নাসরিন

ডাউনলোড

বইয়ের নামঃ Taslima Nasrin poems ( English)

পৃষ্ঠাসংখ্যাঃ ৭০

সাইজঃ ১৪৫ কিলোবাইট

Taslima_Nasrin

ডাউনলোড

বইগুলো আমারবই , মূর্ছনা ও অন্যান্য উৎস থেকে সংগৃহীত

বিজ্ঞান প্রজেক্টের বইসমূহ

নিজের হাতে কিছু তৈরি করে সেটা দিয়ে সবাইকে অবাক করে দেওয়ার আনন্দই আলাদা ! বিশেষ করে স্কুল লাইফে বন্ধুদের ঈর্ষা আর সমীহ এনে দিতে জুড়ি নাই বিভিন্ন বিজ্ঞান প্রজেক্টের । তাই সবার জন্য নিয়ে আসলাম একটি বিজ্ঞান প্রজেক্টের বই । সৌমেন সাহা‘র বিজ্ঞানের প্রজেক্ট ( নবীন বিজ্ঞানীদের উদ্ভাবনীমুলক প্রকল্প)

preview-pos-1

  • বইয়ের নামঃ বিজ্ঞানের প্রজেক্ট ( নবীন বিজ্ঞানীদের উদ্ভাবনীমুলক প্রকল্প)
  • লেখকঃ সৌমেন সাহা
  • প্রকাশনীঃ অনুপম
  • পৃষ্ঠাসংখ্যাঃ ৫৭
  • সাইজঃ ২.৫০ মেগাবাইট

ডাউনলোড

বিজ্ঞানের প্রজেক্ট বইটি স্ক্যান করে আপলোড করেছে বাংলাপিডিএফ

বিজ্ঞানের প্রজেক্ট বইটি আশা করি বিজ্ঞানপ্রেমী ছাত্র-ছাত্রীদের চাহিদা পূরণ করবে।

আদম-হাওয়ার নাম সবাই জানি,কিন্তু লিলিথের নাম কয়জনই বা শুনেছি? অথচ লিলিথের নাম তো হাওয়ার আগেই আসা উচিত ছিল!
ইহুদী পৌরাণিক সৃষ্টি কাহিনী অনুসারে আদম ও লিলিথকে একসাথেই সৃষ্টি করা হয়| কিন্তু বিপত্তি বাদে যখন তাদের শারীরিক মিলনের সময় আসে| লিলিথ আদমের শরীরের নিচে অবস্থানে অস্বীকৃতি জানায়,সে দাবী করে যে আদম ও তার সমান অধিকার রয়েছে| কেননা আদমও যেভাবে সৃষ্টি হয়েছে,তাকেও সেভাবে সৃষ্টি করা হয়েছে| দুজনেই মাটির তৈরি,সেহেতু মর্যাদাও সমান| তাই সমান হয়েও আরেকজন কেন অধম বলে বিবেচিত হবে?
এতে আদম অত্যন্ত ক্ষুব্ধ হয় এবং লিলিথ নিজেকে অদৃশ্য করে দেয়| এরপর স্রষ্টা আবার একই প্রক্রিয়ায় নারী সৃষ্টি শুরু করলে আদম মনঃক্ষুণ্ণ হয়| এরপরই আদমের পঁাজর থেকে হাওয়াকে সৃষ্টি করা হয়|

লিলিথকে পরে বিভিন্ন কল্পকথায় শয়তান,ডাইনী,অপদেবী হিসাবে উপস্থাপন করা হয়েছে| লিলিথই প্রথম নারী যে পুরুষের সমান মর্যাদা দাবী করে,যদিও পৌরাণিক চরিত্র| তাকে নিয়ে রবার্ট ব্রাউনিং এর একটা কবিতা আছে,যেখানে মৃত্যুহুমকিতে হাওয়া বলে যে আদমকে সে আসলে ভালবাসেনি,কিন্তু লিলিথ উল্টোটা জানায়|

জয়তু কাল্পনিক লিলিথ…..